ফিরে যেতে চান

খুলনা নিবাসী এহসানুল হুদা দুলু ১৯৮১ সালে ব্যবসার উদ্দেশ্যে রাজশাহী এসে ১৯৮২ সালে নগরীর হোসনীগঞ্জের সানতুং চাইনিজ রেস্টুরেন্ট নামে রেস্তোরাঁ স্থাপন করে চাইনিজ খাবারের প্রস্তুতির যাত্রা শুরু করেন। সানতুং ১৯৮৭ সাল পর্যন্ত চালু ছিল। দুলু পিতার চাকরির সুবাদে ১৯৬১ সালে রাজশাহী এসে বিবি হিন্দু একাডেমিতে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত পড়েছিলেন। তাঁর পিতা মরহুম কামরুল হুদা সে সময় রাজশাহীতে আয়কর বিভাগে কর্মরত ছিলেন। দুলু ১৯৮৪ সালে মনি বাজারে অবস্থিত নানকিং চাইনিজ রেস্টুরেন্ট স্থাপন করেন । 
পরবর্তীতে মালোপাড়া রোডে রেড ড্রাগন (বিলুপ্ত), শালবাগান বিডিআর গেটের সঙ্গে চায়না গার্ডেনসহ আরো কয়েকটি চাইনিজ রেস্টুরেন্ট স্থাপন হয়।
বর্তমান স্যাটেলাইট নেটওয়ার্কের যুগে এক স্থানের মানুষের সঙ্গে অন্য স্থানের যোগাযোগ খুবই সহজ হয়েছে। ফলে আর্থ- সামাজিক অবস্থা পরিবর্তনের পাশাপাশি খাবারের  পরিবর্তন ঘটছে দ্রুত গতিতে। রাজশাহী মহানগরীতেও বিভিন্ন কেমিক্যাল মিশ্রিত নতুন নতুন খাবার আবিস্কার হওয়ায় মানুষ সেগুলোয় ক্রমশ আকৃষ্ট হচ্ছে। এসব আধুনিক খাবার স্বাস্থের জন্য মানসম্মত না হলেও পূর্বতন খাবারের জায়গাগুলো দখল করে নিচ্ছে। ফলে খাবারে রাজশাহী মহানগরী নিজস্ব বৈশিষ্ট্য কতদিন ধরে রাখতে পারবে বলা মুশকিল।