ফিরে যেতে চান

সাহেব বাজর বড় মসজিদের উত্তর পাশ সংলগ্ন কোহিনুর কনফেকশনারির মাধ্যমে জয়নাল আবেদিন রাজশাহীতে কনফেকশনারির সূচনা করেছিলেন পাকিস্তান আমলে। কনফেকশনারিতে বিস্কুট, পাউরুটি, আচার, মধু, কেক, ড্রিংকস, চকলেট, পেটিস, বার্গার ইত্যাদি পাওয়া যায়। কনফেকশনারিকে ফাষ্টফুডের প্রাথমিক অবস্থা হিসাবে গণ্য করা যেতে পারে। ২০০০ সালের দিকে কোহিনুর কনফেকশনারির পরিবর্তে কোহিনূর ফার্মেসি স্থাপন করা হয়। কোহিনুর ফামের্সি পরিচালনা করছেন জয়নাল আবেদিনের ছেলে মমতাজুল ইসলাম (৬৫)। পাকিস্তান আমলেই জয়নাল আবেদিনের জামাই ওহাব নিজ নামে গণকপাড়া পদ্মা বোর্ডিং এর নিচতলায় ওহাব কনফেকশনারি স্থাপন করেছিলেন। এটি রাজশাহী মহানগরীর দ্বিতীয় কনফেকশনারি। বর্তমানে সেটি বিলুপ্ত। তবে ওহাবের ছোট ভাই সাত্তারের সদর হাসপাতালের মোড়ে একটি কনফেকশনারি আছে। বর্তমানে রাজশাহী মহানগরীর সর্বত্রই কনফেকশনারি আছে। তবে সাহেব বাজারের কুণ্ডু, বিশাল, বিস্কুট বিপনী, নিউ মার্কেটের সেতু, মৌ, হড়গ্রাম বাজারের বেগম, লক্ষ্মীপুর মোড়ের খুকুমনি উল্লেখযোগ্য। 

রাজশাহী মহানগরীর একটি কনফেকশনারি (ছবি- জানুয়ারি ২০১৭)