ফিরে যেতে চান

আলোচিত ইমারত ছাড়াও ১৮২৫ সনে নাটোর হতে রাজশাহী জেলার সদর দপ্তর রাজশাহীতে স্থানান্তরিত হলে ঊনবিংশ ও বিংশ শতাব্দীর প্রথম দিকে রাজশাহীর অনেক জমিদার এ মহানগরীতে নিজেদের আবাস কুঠি নির্মাণ করেছিলেন। পরিতাপের বিষয় ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগ ও ১৯৫০ সনে জমিদারি প্রথা উচ্ছেদের পর এসব জমিদারদের বংশধরগণ কলকাতায় চলে যাওয়ায় কতকটা সংস্কারের অভাবে, কতকটা জবরদখল কিংবা তদস্থলে নতুন নতুন ভবন নির্মাণের ফলে সেই জমিদার কুঠি বা জমিদারবাড়িসমূহ বর্তমানে সবই ধ্বংস প্রাপ্ত। পুরাতন দালান ভেঙ্গে ফেলে তদস্থলে নতুন নতুন দালান নির্মিত হওয়ায় আদি ইমারতের কোন বৈশিষ্ট্যই আর জানা যায় না। তবে এগুলোও যে ঔপনিবেশিক স্থাপত্যের আদলে নির্মিত তাতে কোন সন্দেহ নেই।