ফিরে যেতে চান

মতিহার কুঠির অনতিদূরে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা গেটের সামান্য দক্ষিণে একটি বিশাল পুকুরের পূর্ব পাড়ের উপর এ ছোট কুঠিটি অবস্থিত। আয়তাকার ভূমি নকশায় ১৫.৬৯X১২.১৯ মি. (৫র্০-র্০র্ ৪র্০-র্০র্ ) নির্মিত কাজলা কুঠি বর্তমানে অর্ধভগ্নাবস্থায় বিদ্যমান। স্থানীয় বাসিন্দা কর্তৃক ইমারতটি নবায়িত ও সম্প্রসারিত হয়েছে। আদিতে ইমারতটির প্রধান প্রবেশপথ ছিল পূর্বদিকে। একটি প্রশস্ত সিঁড়ি সোপান অতিক্রম করে এ প্রবেশপথে পৌঁছানো যেতো। গোলায়িত স্তম্ভ সংবলিত উত্তর-পশ্চিমের বারান্দা এখন ধ্বংসপ্রাপ্ত হলেও এর ভিত্তির ধ্বংসাবশেষ দেখে তা সহজেই অনুমান করা যায়। কুঠির সম্মুখে বাসগৃহ নির্মিত হওয়ায় বর্তমানে এটি লোক চক্ষুর আড়ালে ঢাকা পড়েছে।

কাজলা কুঠি