ফিরে যেতে চান

সমতলছাদ বিশিষ্ট রানীবাজার চিনিপট্টি লেন কালীমন্দির

রানীবাজার মাদ্রাসা মার্কেট পার হয়ে হাতের বামে একটি গলি দিয়ে এ মন্দিরে যাওয়া যায়। স্থানটি রানী বাজার কালীতলা নামে পরিচিত। এক কাঠারও কম পরিমাণ জায়গার উপর অতি ক্ষুদ্রাকারে ও অত্যন্ত সাদামাটাভাবে পূর্ব-পশ্চিম আয়তাকারে মন্দিরটি নির্মিত। মন্দিরটির দক্ষিণমুখী একটি প্রবেশপথ এবং প্রবেশপথের উভয়দিকে একটি করে জানালা রয়েছে। উপরের ছাদ কাঠের তীর-বর্গায় নির্মিত। মন্দিরটি ভগ্নদশাবস্থায় বিদ্যমান। মন্দিরটির পশ্চিমাংশে উন্মুক্ত শীতলা মন্দির রয়েছে। ক্ষুদ্র এ শীতলা মন্দিরটি কেবল প্রাচীর দিয়ে ঘেরামাত্র। শ্রী দিলীপ কুমার মিত্র (পিতা মৃত তারিণীচরণ মিত্র) এ মন্দিরটি দেখাশোনা করেন। তাঁর মতে, মন্দির সংলগ্ন পশ্চিমে অবস্থিত ভগ্নদশাগ্রস্ত তাঁদের একতলা বাড়িটিও অত্যন্ত পুরাতন (একশ বছরের বেশি)। এ বাড়ি এবং মন্দির তাঁর দাদু মৃত গোপল মিত্র নির্মাণ করেছিলেন।

রানীবাজার চিনিপট্টি লেন কালীমন্দির ( দক্ষিণ দিক থেকে)