ফিরে যেতে চান

ফুদকীপাড়া পঞ্চচূড়া কালীমাতার মন্দির

শহরের কুমারপাড়া বিআরটিসি বাস স্ট্যান্ড হতে দক্ষিণ দিকের পদ্মা অভিমুখী রাস্তা দিয়ে কিছু দূর গিয়ে সামান্য পশ্চিমে গেলেই ফুদকিপাড়া রাস্তার উত্তর পাশে নির্মিত এ মন্দিরটি নজরে পড়ে। দক্ষিণমুখী মন্দিরটি এক কক্ষ ও অসমআয়তন বিশিষ্ট। মন্দিরটির অভ্যন্তরীণ পরিমাপ উত্তর-দক্ষিণে ২.৯০মি. এবং পূর্ব-পশ্চিমে দক্ষিণ প্রান্ত ৩.০৫মি. ও উত্তর প্রান্ত ২.৮০মি.। দক্ষিণ দেয়ালে একটি প্রশস্ত খিলানপথ এবং পশ্চিম দেয়ালে স্বল্প আয়তনের দুটি খিলানপথ ও পূর্ব দেয়ালে একটি জানালা বিদ্যমান। এছাড়া উত্তর দেয়ালে দুটি কুলঙ্গিও পরিলক্ষিত হয়। কক্ষের উত্তর প্রান্তে একটি উঁচু বেদীতে শিবের উপর দণ্ডায়মান কালীমাতার বিগ্রহ স্থাপিত রয়েছে। যা ভক্তিভরে পূজিত হয়ে থাকে। 
মন্দিরটির অভ্যন্তরের উপরিভাগ চৌচালা ছাদে আচ্ছাদিত হলেও বহির্ভাগ সমতল করে তদুপরি চার কোণায় চারটি ক্ষুদ্রাকৃতি চৌচালা ছত্রি বা চূড়া এবং কেন্দ্রস্থলে অপেক্ষাকৃত বড় একটি চৌচালা চূড়া স্থাপিত রয়েছে। যা এ শহরের মন্দির স্থাপত্যে ব্যতিক্রমধর্মী বলে মনে হয়। স্থানীয় সূত্র মতে, ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে মন্দিরটির অভ্যন্তর ও বহির্দেয়ালগাত্র এবং মেঝে সম্পূর্ণটাই টালি দিয়ে সজ্জিত করা হয়। এ মন্দিরের পশ্চিম দেয়াল সংলগ্ন আরেকটি বর্গাকৃতির দুর্গামন্দির ১৯৯৮ সালে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়নে নির্মাণ করা হয়। মন্দিরগাত্রের লিপি অনুসারে এটি ১৮৮৭ সালে (১২৯৪ বঙ্গাব্দ) নির্মিত হয়।
 

ফুদকিপাড়া কালীমাতার মন্দির