ফিরে যেতে চান

বিশ শতাব্দীর ষাটের দশকে স্থাপিত হাবিব ব্যাংক লিমিটেড ও কমার্স ব্যাংক লিমিটেডকে ১৯৭২ সালে একত্রীকরণ ও জাতীয়করণ করে অগ্রণী ব্যাংক নাম দেয়া হয়।২ সে হিসেবে এ ব্যাংক রাজশাহী মহানগরীতে ১৯৬১ সালের ২১ সেপ্টেম্বর বর্তমান সাহেব বাজার শাখায় (তৎকালীন হাবিব ব্যাংক লিমিটেড) কার্যক্রম শুরু করে। ২০০৭ সালের ১৭ মে ব্যাংকটি লিমিটেড হয়ে যায়। বর্তমানে রাজশাহী মহানগরীতে ১০টি শাখার মাধ্যমে এ ব্যাংকটি আমানত গ্রহণ, বিভিন্ন প্রকার বিনিয়োগ, বিদ্যুৎ-টেলিফোন-পানি বিল গ্রহণ, সরকার ঘোষিত লটারি কার্যক্রম, শিক্ষা প্রসারের জন্য উপবৃত্তি প্রদান, সামরিক ও বেসামরিক অবসর ভাতা প্রদানসহ বিভিন্ন ব্যাংকিং সেবা প্রদান করে থাকে।৩৮

    শাখা                               স্থাপনের তারিখ
1. সাহেব বাজার শাখা             - ২১.৯.১৯৬১
  (সাবেক হাবিব ব্যাংক লি.)    
2. নিউ মার্কেট শাখা              - ৩১.৮.১৯৬৩  
3. হরিয়ান শাখা                   - ২৭.১১.১৯৬৪
4. রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা    - ২.৪.১৯৬৫ 
5. মালোপাড়া শাখা                    - ২৩.৪.১৯৬৬ 
 (সাবেক কমার্স ব্যাংক লি.)
6. তালাইমারী শাখা                    - ১২.৮.১৯৭৭
7. ওয়াপদা (ইরি) শাখা            - ১৫.৭.১৯৭৭
8. লক্ষ্মীপুর শাখা                    - ২৭.৩.১৯৭৮
9. মাদ্রাসা মার্কেট শাখা           - ২১.১২.১৯৮০(বিলুপ্ত)
10. নগর ভবন শাখা (প্রথম ম্যানেজার মো. একরামুল হক)      -  ৬.২.২০১১ 
১১. কোর্ট বাজার শাখা (প্রথম ম্যানেজার মো. আব্দুর রউফ)৬৯৩  - ১০.২.২০১৩ 
    
রাজশাহী সার্কেল অফিসটি নগরীর লক্ষ্মীপুরে ছিল। বর্তমানে উপশহরে অবস্থিত। পূর্বে সার্কেল অফিস থেকে রাজশাহী বিভাগের ১৩টি আঞ্চলিক কার্যালয় নিয়ন্ত্রণ করা হতো। ২০১২ সাল থেকে সার্কেল অফিস রাজশাহী বিভাগের ৮টি জেলার ৯টি আঞ্চলিক এরিয়া নিয়ন্ত্রণ করে। প্রতিটি জেলা একটি আঞ্চলিক এরিয়া। শুধু বগুড়া জেলা উত্তর ও দক্ষিণ অঞ্চলে বিভক্ত। রাজশাহী, পাবনা, নাটোরের আঞ্চলিক প্রধান হলেন ডিজিএম এবং অন্য ৬টির প্রধান হলেন এজিএম। রাজশাহী জেলার আঞ্চলিক কার্যালয় সাহেব বাজারে অবস্থিত। উপ মহাব্যবস্থাপক আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রধান। মহাব্যবস্থাপক সার্কেল কার্যালয়ের প্রধান।