ফিরে যেতে চান

বিশ শতাব্দীর ষাটের দশকে স্থাপিত ইউনাইটেড ব্যাংক লিমিটেড ও ইউনিয়ন ব্যাংক লিমিটেডকে ১৯৭২ সালে একত্রীকরণ ও জাতীয়করণ করে জনতা ব্যাংক নাম দেয়া হয়।৩৭ সে হিসেবে জনতা ব্যাংক রাজশাহী মহানগরীতে ১৯৬১ সালের ২০ সেপ্টেম্বর বর্তমান কর্পোরেট শাখায় কার্যক্রম শুরু করে।২ ২০০৭ সালের নভেম্বরে ব্যাংকটি লিমিটেড হয়। বর্তমানে ব্যাংকটি ৮টি শাখায় রাজশাহী মহানগরীতে ব্যাংকিং সেবা কার্যক্রম করে থাকে। সেবার মধ্যে আমানত গ্রহণ, বিনিয়োগ, বিদ্যুৎ বিল গ্রহণ, টিভি লাইসেন্স ইস্যু ও নবায়ন, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের হিসেবের মাধ্যমে বেতন প্রদান, দেশ-বিদেশে অর্থ প্রদান ইত্যাদি।
    শাখা     স্থাপনের তারিখ
1.    রাজশাহী কর্পোরেট শাখা            - ২০.৯.১৯৬১ 
    (২ আগস্ট ২০০৩ তারিখ থেকে শাখাটি 
      সাহেব বাজার মণিচত্বরে অবস্থিথ)১২৯ 
2.    রাণীবাজার শাখা    - ২১.১১.১৯৬৮
3.    হড়গ্রাম শাখা    - ৪.৮.১৯৭৫
4.    নওদাপাড়া শাখা    - ৩১.৩.১৯৭৭
5.    মহিলা শাখা (ঘোড়ামারা)                                  - ১১.১১.১৯৭৯
6.    হেতমখাঁ শাখা    - ২৪.১২.১৯৭৯
7.    লক্ষ্মীপুর শাখা (পূর্বে কাজীহাটা)    - ২৯.১২.১৯৮০
8.    কাদিরগঞ্জ শাখা    - ২৯.১২.১৯৮০
মহিলা শাখার পূর্ব নাম ছিল ঘোড়ামারা (মহিলা শাখা) এবং অবস্থান ছিল ঘোড়ামারায়। বর্তমানে এর অবস্থান সাহেব বাজার স্টার ভবনে। নাম শুধু মহিলা শাখা। পুরুষ-মহিলা উভয়ই এ শাখার স্টাফ ও ক্লায়েন্ট।৩৭৩
জনতা ব্যাংক লিমিটেডের বিভাগীয় অফিস কাজীহাটা ১০তলা ভবনে ছিল। বর্তমানে বর্ণালীর মোড় গ্রেটার রোডে অবস্থিত। এখান থেকে এ ব্যাংকের রাজশাহী বিভাগের প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়। ১১ ফেব্রুয়ারি ২০০৫ তারিখে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে মহাব্যবস্থাপক হলেন বিভাগীয় অফিসের প্রধান। বিভাগীয় অফিসে একজন উপমহাব্যবস্থাপকও আছেন।৩২২ড
কাজীহাটায় ১০তলা ভবনের বিপরীতে বৃহত্তর রাজশাহী এরিয়া অফিস অবস্থিত। উপমহাব্যবস্থাপক হলেন এরিয়া অফিসের প্রধান।
২৩ ডিসেম্বর ২০০২ তারিখ থেকে জনতা ব্যাংকের কর্পোরেট শাখায় কম্পিউটারাইজড ওয়ান স্টপ সার্ভিস চালু হয়। এতে গ্রাহক সুবিধা বৃদ্ধি পায়।৩৯