ফিরে যেতে চান

মাহবুব সিদ্দিকীর শহর রাজশাহীর আদিপর্ব (২০১৩) গ্রন্থের ৩৬৬-৩৮৫ পৃষ্ঠায় কবি ফজর আলী খাঁন ‘রাজশাহীর সংক্ষিপ্ত ইতিহাস’ শিরোনামে একটি পা-ুলিপিতে লিখেছেন, ‘মিউনিসিপ্যাল বা পৌরসভার নিউমার্কেট যেখানে পতিতালয়, তাড়ির আস্তানা ও পশুর খোয়াড় ছিল। সেখানে স্থাপিত হইয়াছে।’৬৮২
২৬ জুলাই ২০১৬ তারিখে নিউ মার্কেট ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি নরুননবী (৭২ বছর) ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের অবসরপ্রাপ্ত কর আদায়কারী দড়িখরবোনা নিবাসী (উপহার সিনেমা হল লি. এর পিছনে) শামসুদ্দিন (৮০ বছর) এর নিকট থেকে জানা যায়, প্রথম ভাগাড় ছিল মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি স্টেডিয়ামের (পূর্ব নাম জেলা স্টেডিয়াম) জায়গায়।
নিউ মার্কেট নির্মাণের পূর্বে  জায়গাটিতে বাঁশের খুঁটির উপর টিনের ছাপরার কয়েকটি দোকান ছিল। সেখানে সবজি, মাংস বিক্রি হতো। দক্ষিণ-পশ্চিম অংশে ছিল বাঁশের আড্ডা, খড়ির আড়ত। পশ্চিম পাশে ছিল মদের ভাটি। এর কোন এক জায়গায় পতিতা পল্লী ছিল। বর্তমান উপহার সিনেমা হলের জায়গায় পুকুর ছিল। সেখানে পৌরসভা আবর্জনা ফেলতো। নগর ভবনের পশ্চিম-দক্ষিণ কোণায় নির্মাণাধীন স্বপ্নচূড়া প্লাজার কাছে ড্রেনের মধ্যে পৌরসভা ময়লা ফেলতো। অবশ্য এক সময় বারাহী নদী সাহেব বাজার হয়ে এ পাশ দিয়েই বহমান ছিল বলে জানা যাই।

রাজশাহী নিউ মার্কেটের পূর্বমুখী মেইন গেট (ছবি- ২০১১)

নিউ মার্কেটের প্রধান গেটের উপরে নির্মাণ সাল লিখা আছে ১৯৬২। আবার কাজী মোহাম্মদ মিছেরের রাজশাহীর ইতিহাস গ্রন্থে উল্লেখ আছে, তৎকালীন মিউনিসিপ্যালিটির উদ্যোগে ১৯৬৩ সালের ২৩ মার্চ ১১ লক্ষাাধিক টাকা ব্যয়ে নিউ মার্কেটটি নির্মিত হয়। উপরোক্ত তথ্যদ্বয় থেকে ধারণা করা হয়, ১৯৬২ সালে বাজারটির নির্মাণ শুরু ও ১৯৬৩ সালের মার্চ উদ্বোধন করা হয়। বাজা রটি উপস্থাপনের বীজ বপন করেছিলেন জেলা প্রশাসক খান কমো. শা মসুর রহমান।১ বাজা রটি দোতলা।
এ বাজাইবার পশ্চিম পাশে দারুচিনি প্লাজা নির্মাণের পূর্বে দোকানের পরিসংখ্যান ছিল মোট ৪০৪ টি। বর্তমানে নিউ মার্কেটের মোট দোকানের সংখ্যা ৩৫৭ টি। কয়েক বছর পূর্বে নিউ মার্কেটের পশ্চিম পাশ সংলগ্ন সবজি বাজারে দারুচিনি প্লাজা নির্মাণের জন্য মূল ভবনের বাইরে ৪৭ টি দোকান ভাঙ্গা হয়। ভাঙ্গার পূর্বে ভিতর বাইরের মোট দোকান ছিল ৪০৪ টি। এর মধ্যে নিচতলায় ১৬৫টি, নতুন ভবনে ৮টি, দোতলায় ১১২ টি, সিঁড়ি ঘরে ছোট দোকান ১৯টি, হকার্স মার্কেটে ৮০টি ও সবজি মার্কেটে ২০টি। ভাঙ্গা হয় সবজি মার্কেটের ২০টি, হকার্স মার্কেটে ৮টি ও মূলভবনের বহিরাংশের ১৯টি।৫৫৪