ফিরে যেতে চান

মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট

১৯৬১ সালে মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট তৎকালীন পাকিস্তানের কৃষি ও পূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীনে সয়েল সার্ভে প্রজেক্ট অব পাকিসত্মান নামে প্রতিষ্ঠা লাভ করে। এর উদ্দেশ্য ছিল কৃষি উন্নয়নের জন্য দেশের প্রাথমিক জরিপ সম্পন্নকরণ। প্রকল্পটির ফলো-আপ কর্মসূচি হিসেবে ১৯৬৯ সালে সেন্ট্রাল সয়েল রিসার্চ ইনস্টিটিউট নামে কার্যক্রম অব্যাহত থাকে। ১৯৭২ সালে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনে প্রতিষ্ঠানটি মৃত্তিকা জরিপ বিভাগ রূপে পরিচিতি লাভ করে। ১৯৮৩ সালে কৃষি ও বন মন্ত্রণালয়ের অধীনে মৃত্তিকা জরিপ বিভাগটির পুনর্গঠন, সম্প্রসারণ এবং নতুন নামকরণ করে বর্তমান মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউট বা Soil Resource Development Institute প্রতিষ্ঠা করা হয়।২৬ ২৬ ফেব্রম্নয়ারি ২০১৫ তারিখের প্রাপ্ত তথ্যানুসারে মহানগরীর কাজীহাটা টিভি কেন্দ্রের বিপরীতে এ ইনস্টিটিউটের আঞ্চলিক কার্যালয় অবস্থিত। আঞ্চলিক কার্যালয়ের অধীনে আছে বৃহত্তর রাজশাহী, দিনাজপুর, রংপুর, বগুড়া ও পাবনা জেলা কার্যালয়। রাজশাহী মহানগরীর এ ইনস্টিটিউটের প্রধান কাজ হলো উপজেলা ভূমি ও মৃত্তিকা সম্পদ ব্যবহার নির্দেশিকা প্রস্তুত, মাটির উর্বরতা পরীক্ষণ, মাটির উর্বরতাভিত্তিতে ফসলের সার প্রদানের সুপারিশ, কৃষিভিত্তিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে পরামর্শ, সেবা, উপাত্ত, প্রতিবেদন প্রভৃতি সরবরাহ, কৃষিভিত্তিক মিটিং, সেমিনার, কর্মশালা ইত্যাদিতে যোগদান।
আঞ্চলিক কার্যালয়ের প্রধান হলেন প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা । এছাড়াও ১ জন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা, ১ জন অফিস তত্ত্বাবধায়ক, ১ জন ড্রাফটসম্যান, ১ জন অ্যামোনিয়া প্রিন্টার ও ১ জন এমএলএসএস রয়েছে।
জেলা কার্যালয়ের প্রধান হলেন ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা। এছাড়াও রয়েছে ১ জন বৈজ্ঞানিক কর্র্মকর্তা ও অন্যান্য কর্মচারী।