ফিরে যেতে চান

১৯৭০ সালের পূর্বে রাজশাহীতে ১ জন জেলা কৃষি অফিসার ছিল। ১৯৭০ সালের ২ মার্চ তারিখের সরকারি বিজ্ঞপ্তি নং এপ্রি/৪এ-৮০৬৮-১/৩০৩ অনুসারে কৃষি পরিদপ্তরকে দুই ভাগে বিভক্ত করে কৃষি সম্প্রসারণ ও ব্যবস্থাপনা এবং কৃষি গবেষণা ও শিক্ষা নামে ২টি পৃথক পরিদপ্তর গঠন করা হয়।২ এরপর কৃষি সম্প্রসারণ ও ব্যবস্থাপনা পরিদপ্তরকে অধিদপ্তরে উন্নীত করা হয়। ১৯৭৬ সালে জেলা কৃষি অফিসারের পদবি পরিবর্তন করে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার করা হয়। ১৯৮৩ সালে তার পদবি উপ পরিচালকে উন্নীত করা হয়। ২০০২ সালের ২০ নভেম্বরের  অত্র অফিসের তথ্যানুসারে এ অফিসে ১ জন উপ পরিচালক, ১ জন ট্রের্নিং অফিসার, ১জন শস্য উৎপাদন বিশেষজ্ঞ, ১ জন উদ্ভিদ সংরক্ষণ বিশেষজ্ঞ, ১ জন উদ্যান তত্ত্ব বিশেষজ্ঞ, ১জন কৃষি প্রকৌশলী আছে। রাজশাহী জেলার থানাসমূহের কৃষি সম্প্রসারণ অফিসসমূহ এ অফিসের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এর প্রধান কাজ হলো উন্নত জাতের শস্য উৎপাদনের লক্ষ্যে কৃষকদের মাঝে প্রচার এবং বিভিন্ন শস্য বীজের প্রদর্শনী। অফিসটি নগরীর রেলগেটে অবস্থিত।
পরবর্তীতে সাংগঠনিক কাঠামোতে পদবিগুলোয় কিছু পরিবর্তন আসে। ১৮ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে প্রাপ্ত তথ্যনুযায়ী শস্য উৎপাদন বিশেষজ্ঞর পরিবর্তে অতিরিক্ত উপ পরিচালক (শস্য), উদ্ভিদ সংরক্ষণ বিশেষজ্ঞর পরিবর্তে অতিরিক্ত উপ পরিচালক (উদ্ভিদ সংরক্ষণ, উদ্যান তত্ত্ব বিশেষজ্ঞর পরিবর্তে অতিরিক্ত উপ পরিচালক (উদ্যান) হয়েছে। কৃষি প্রকৌশলী সাংগঠনিক কাঠামো নেই। তবে প্রেষণে থাকেন। পদটি সংগঠনিক কাঠামোতে অর্ন্তভূক্তকরণের প্রক্রিয়া চলছে।২৯০
রাজশাহী মহানগরীর নওদাপাড়ায় বিমান বন্দর রোডে রাজশাহী আঞ্চলিক কৃষি সম্প্রসারণ অফিস অবস্থিত। এর প্রধান হলেন ১ জন অতিরিক্ত পরিচালক। পূর্বে রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, বগুড়া, জয়পুরহাট, পাবনা, সিরাজগঞ্জ ৮টি জেলা অফিস আঞ্চলিক অফিস দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হতো। বর্তমানে রাজশাহী, নাটোর, নওগাঁ, চাঁপাইনবাবাগঞ্জ ৪টি জেলা অফিস দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়।৪৬২ অফিসটি প্রথমে রাজশাহী কোর্টের বর্তমান আরআরএফ লাইনের টিন শেডের কক্ষে সম্ভবত ১৯০২ সালে সূচনা হয়। তারপর ক্রমান্বয়ে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ চত্বরে (তৎকালীন কৃষি ফার্ম), রাণীবাজর, ১৯৬৮ সালে দড়িখরবোনা করিম খলিফার বাড়ি, ১৯৭০ সালে বাটার মোড়ের গলির কবির সাহেবের বাড়িতে, ১৯৭৯ সালে মালোপাড়ায় আব্দুস সাত্তারের বাড়িতে, ১৯৮৫ সালে দড়িখরবোনায় এবং ১৯৮৬ সালে বর্তমান নিজস্ব ভবনে স্থানান্তরিত হয়।
রাজশাহী মহানগরীতে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের রাজশাহী কোর্টের পূর্বপাশে একটি ও নওদাপাড়ার আঞ্চলিক অফিসের পাশে একটি মোট দুটি উদ্যান আছে। নওদাপাড়ারটি পূর্বে কাশিয়াডাঙ্গায় ছিল। পূর্বের নামানুসারে এখনও কাশিয়াডাঙ্গা উদ্যান নামেই আছে। কোর্টের উদ্যানটি পরিচালনা করেন উদ্যান তত্ত্ববিদ ও কাশিয়াডাঙ্গাটি নার্সারী তত্ত্ববিদ।৪৬৫