ফিরে যেতে চান

বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি

(Bangladesh Road Transport Authortity- BRTA)

মোটরযান সংক্রান্ত যাবতীয় কাজ একটি মাত্র সংস্থার মাধ্যমে সম্পাদনের উদ্দেশ্য ১৯৮৭ সালে মোটরযান অধ্যাদেশ ১৯৮৩ এ ২ এ অধ্যায় সংযোজনের মাধ্যমে ২৯১ জন লোকবল সমৃদ্ধ বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) গঠন করা হয়।৬০ বিআরটিএ গঠনের পূর্বে মোটরযানের রেজিস্ট্রেশন ও ড্রাইভিং লাইসেন্স পুলিশ কমিশনার/পুলিশ সুপার এবং বাণিজ্যিক মোটরযানের রুট পারমিট যোগাযোগ মন্ত্রণালয়/জেলা প্রশাসক অফিস হতে প্রদান করা হতো।

রাজশাহীতে প্রথমে বিআরটিএর সার্কেল অফিস ও পরে বিভাগীয় কার্যালয় স্থাপন হয়। ২০০৭ সালের ২০ এপ্রিল বদরুল ইসলাম আকন্দ প্রথম বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক পদে যোগদান করেন। ২০১৫ সালে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে শুরুতে বিভাগীয় কার্যালয়ের প্রশাসনিক এরিয়া ছিল উত্তরাঞ্চলের ১৬টি জেলা। কয়েক বছর পূর্বে বর্তমান রাজশাহী বিভাগের ৮ জেলায় সীমাবদ্ধ হয়। সার্কেল অফিস এখন জেলাকেন্দ্রিক। পূর্বে রাজশাহী, নাটোর, চাঁপাই নবাবগঞ্জ জেলা ছিল সার্কেলের অন্তর্ভুক্ত। বর্তমানে বিভাগীয় অফিসের প্রধান হলেন উপ পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার। সার্কেল অফিসের প্রধান হলেন সহকারী পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার। উভয় অফিস নওদাপাড়ায় একই ভবনে অবস্থিত।
বর্তমানে বিআরটিএ মোটরযানের রেজিস্ট্রেশন ড্রাইভিং লাইসেন্স, ফিটনেস প্রদান ও নবায়ন রুট পারমিট প্রদান ও নবায়ন, রাজস্ব আয়, সড়ক পরিবহন সেক্টরে মালিক-শ্রমিক বিভিন্ন সমস্যার সমাধান প্রভৃতি সেবা প্রদান করে থাকে। 
রাজশাহী সার্কেল অফিস ১৯৯৭-৯৮ সাল হতে ২০০১-২০০২ পর্যন্ত যথাক্রমে ১৯৮.১ কোটি, ৮১.২ কোটি, ১৮.২ কোটি, ২৭.৩ কোটি ও ৭১ কোটি টাকা আয় করে।৬০