ফিরে যেতে চান

বিশ্ববিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা ঋতিক ঘটকের কৃতিত্বকে সংরক্ষণ, গবেষণা, সংগ্রহ ও রাজশাহীর চলচ্চিত্র অঙ্গন উন্নয়নের উদ্দেশ্যে ২০০৯ সালে ঋতিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটি প্রতিষ্ঠিত হয় রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটি নামে। রাজশাহীর সন্তান কানাডা প্রবাসী চলচ্চিত্র গবেষক ও প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নির্মাতা মনিস রফিক এক্ষেত্রে উৎসাহ প্রদান করেন। তাঁর পরামর্শেই রাজশাহীর কয়েকজন নাট্যকর্মী ২০০৯ সালে ঋতিক ঘটকের ৮৪ তম জন্মবার্ষিকী পালনকে কেন্দ্র করে গঠন করেছিলেন রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটি। যার আহবায়ক ছিলেন ডা. এফএমএ জাহিদ। সদস্য সচিব ছিলেন রাসেদুজ্জামান উজ্জল। সদস্য ছিলেন মো.মাহমুদ হোসেন মাসুদসহ কয়েকজন। নব গঠিত সোসাইটি ২০০৯ সালের ৪, ৫ ও ৬ নভেম্বর তিনব্যাপী রাজশাহীতে সর্বপ্রথম ঋতিক ঘটকের জন্ম বার্ষিকী পালন করে বর্তমান মিয়াপাড়াস্থ হোমিওপ্যাথি কলেজে। হোমিওপ্যাথি কলেজটি ঋতিক ঘটকের নানার বাড়ি। পরবর্তীতে ঋতিক ঘটকের নানা বাড়িটি ঋতিক ঘটকের পিতাকে দান করেছিলেন। এ অনুষ্ঠানেই অধ্যাপক ফজলুল হক ঋতিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটি গঠনের প্রস্তাব দেন। এরপর সোসাইটির পূর্ণাঙ্গ কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হয়। কমিটির সভাপতি হন চলচ্চিত্র কর্মী আহমেদ কবির লিটন । সাধারণ সম্পাদক হন শরীফ আহমেদ বিল্টু। এরপর ২০০৯ সালেই ড.এফএমএ জাহিদকে সভাপতি ও মো.মাহমুদ হোসেন মাসুদকে সাধারণ সম্পাদক করে গঠন করা হয় ঋতিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটি। ২০১১ সাল থেকে এ সোসাইটি ঋতিক ঘটকের জন্মবার্ষিকী কেন্দ্র করে বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে আসছে। কর্মসূচির মধ্যে থাকে ঋতিক ঘটকের চলচ্চিত্র প্রদর্শন,স্মারক ম্যাগাজিন প্রকাশ, চলচ্চিত্রে অবদান রাখার জন্য খ্যাতনামা চলচ্চিত্র ব্যক্তিদের পুরস্কার প্রদান। ২০১২ সালের ৯ নভেম্বর এ সোসাইটির উদ্যোগে হোমিওপ্যাথি কলেজের অডিটোরিয়ামের নাম ঋতিক ঘটক নামকরণের জন্য কলেজ প্রাঙ্গণে একটি নাম ফলক স্থাপন করা হয়। ফলকটি উন্মোচন করেন কথা শিল্পী হাসান আজিজুল হক।