ফিরে যেতে চান

মোহাম্মদ হাতেম ফাউন্ডেশন পাঠাগার

মহানগরীর পশ্চিমাঞ্চলের মহিষবাথানে কোর্ট স্টেশন রোডের হেলি প্যাড (বিলুপ্ত) যাওয়ার রাস্তা সংলগ্ন উত্তর পাশের একটি ভবনে মোহম্মদ হাতেম ফাউন্ডেশন অবস্থিত। মহিষবাথান নিবাসী বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা প্রবাসী মো. আব্দুল হাতেম নিজ অর্থায়নে এ পাঠাগার স্থাপন করেন ২০১২ সালের ৬ এপ্রিল। ভবনের দুতলা ও তিনতলার দুটি কক্ষ পাঠাগারের জন্য বরাদ্দ। বর্তমানে পাঠাগারের যাবতীয় কার্যক্রম চলে দুতলার কক্ষে। তিন তলার কক্ষটি প্রবীণদের জন্য বসার ব্যবস্থা আছে। পাঠাগার ৫ সদস্য একটি কমিটির দ্বারা পরিচালিত হয়। কমিটির প্রধান পরিচালক মো. আব্দুল হাতেম। অন্য চারজন সদস্যের মধ্যে গোলাম সাকলাইন ও সারওয়ার জাহান পাঠাগারটি পরিচালনা করেন। পাঠাগারের কোন সাধারণ সদস্য নেই। পাঠাগারে বিনামূল্যে যে কোন ব্যক্তি পড়ার সুযোগ পান। বই ধার দেয়া হয়না। সপ্তাহে রবিবার এবং দুই ঈদে তিন দিন করে বন্ধ থাকে। শীতকালে সকাল ৯.৩০ টা থেকে দুপুর ১.০০ টা ও দুপুর ২.০০ টা থেকে সন্ধ্যা ৫.৩০টা এবং গ্রীষ্মে সকাল ১০.০০ টা থেকে দুপুর ১.০০টা ও বিকাল ৩.০০ টা থেকে সন্ধ্যা ৭.০০ টা পর্যন্ত পাঠাগার সবার জন্য উন্মুক্ত। তবে শুক্রবারের প্রথম শিফট দুপুর ১২.৩০ টা পর্যন্ত খোলা রাখা হয়। এখানে বিনামূল্যে প্রবীণ পাঠকরা চা পানের সুযোগ পান। তবে তাঁরা আসেন না বললেই চলে। 

মোহাম্মদ হাতেম ফাউন্ডেশন পাঠাগারের পাঠকক্ষ(ছবি-জানুয়ারি ২০১৭)

৭ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে দেখা যায় পাঠাগারের মোট সেল্ফ সংখ্যা ৬টি। এর বইয়ের পরিমাণ ৩৩০৩টি। সাহিত্য, ধর্মীয়, সায়েন্স ফিকসন, বিজ্ঞান, মুক্তিযুদ্ধ, একাডেমিক বিভিন্ন ধরনের বই আছে এখানে। ঢাকা থেকে প্রকাশিত দুটি বাংলা দৈনিক, একটি ইংরেজি দৈনিক ও রাজশাহী থেকে প্রকাশিত দুটি বাংলা দৈনিক পত্রিকা নেয়া হয়। পাঠকদের জন্য ইন্টারনেট সংযোগের জন্য তিনটি ল্যাপটপ আছে।২৬৯