ফিরে যেতে চান

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার

দেশের উত্তরাঞ্চলের শ্রেষ্ঠ বিদ্যাপিঠ রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর গ্রন্থাগার। বায়েজিদ আহমেদের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস গ্রন্থে এ গ্রন্থাগারের ভবন ৪ তলা উল্লেখ থাকলেও প্রকৃত পক্ষে ভবনটি ৩ তলা। ২য় তলার মেঝে থেকে ছাদ দুটো তলার সমান। বায়েজিদ আহমেদ তাঁর গ্রন্থে উল্লেখ করেন, ২ লাখ ৫০ হাজারেরও বেশি বই আছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৯শ প্রকারের বেশি সাময়িকী। প্রতি বছর ৬৫০ প্রকারের দেশি-বিদেশি সাময়িকী সংগ্রহ করা হয়। এছাড়াও আছে দেশি-বিদেশি ম্যাগাজিন ও দৈনিক পত্রিকা।৮৪ 

রাজশাহী বিশ্বদ্যিালয় কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার

বর্তমান সংখ্যা অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। বইয়ের সংখ্যা সাড়ে তিন লাখেরও বেশি। সাময়িকীর সংখ্যা ৪৫ হাজার। দৈনিক পত্রিকা নেয়া হয় ২৭ টি। গ্রন্থাগারের সকল বই ওয়েবসাইটে দেয়ার জন্য ২০১৩ সালের নভেম্বরে কাম্পিউটারাইজড শুরু হয়। ২০১৫ সালের ৬ জুলাই প্রাপ্ত তথ্যানুসারে এ পর্যন্ত ৫২ হাজার বই কম্পিউটারাইজড হয়েছে। তিন তলা বিশিষ্ট গ্রন্থাগার ভবনের কিছু অংশ শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত।৫১৯
গ্রন্থাগারটির গোড়াপত্তন হয়েছিল ১৯৫৫ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের তৎকালীন প্রশাসন ভবন বড়কুঠিতে। বছরখানেক পর পাশের ভোলানাথ বিশ্বেশ্বর হিন্দু একাডেমিতে স্থানান্তরিত হয়। ১৯৫৮-১৯৫৯ সালের দিকে বর্তমান বিশ^বিদ্যালয় চত্বরের প্রধান গেটের পাশে বিএনসিসি অফিসে মতিহার কুঠিতে গ্রন্থাগারের শাখা খোলা হয়। ১৯৬১ সালে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের উপরতলায় এর ব্রাঞ্চ খোলা হয়েছিল। বর্তমান গ্রন্থাগার ভবনের কাজ শুরু হয়েছিল ১৯৬৩ সালে এবং বিভিন্ন শাথা গ্রন্থাগারের সকল গ্রন্থ, জার্নাল প্রভৃতি স্থানান্তরের কাজ সম্পন্ন হয় ১৯৬৪ সালে।৮৪ 
গ্রন্থাগারের মোট ফ্লোর স্পেস ৫৪,৫০০ বর্গফুট ও বই তাকের দৈর্ঘ্য প্রায় ৯ কিলোমিটার। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০০১-২০০২ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন অনুসারে ৩০/০৬/২০০১ তারিখ পর্যন্ত এ গ্রন্থাগারের বই ও সাময়িকীর সংখ্যা ৩,০৭,৫৬১ কপি। এর মধ্যে বাংলা, ইংরেজি, আরবি, উর্দু, ফারসি ও অন্যান্য ভাষায় ডকুমেন্টস, রিপ্রিন্টসহ বই এর সংখ্যা ২,৭১,৩২১ কপি এবং সাময়িকী (বাংলা ইংরেজী, আরবি ও অন্যান্য ভাষায়) বাইন্ড ভলিউম ৩৬,২৪০ কপি। ৩ জুন ২০০২ তারিখ পর্যন্ত বই ও সাময়িকীর মোট সংখ্যা ৩,১০,৭৯২ কপি। এর মধ্যে বই (বাংলা, ইংরেজি, আরবি, উর্দু, ফারসি ও অন্যান্য ভাষায় ডকুমেন্টস, রিপ্রিন্টসহ) ২,৭৪,৫০২ কপি ও সাময়িকী (বাংলা, ইংরেজি, আরবি ও অন্যান্য ভাষায়) বাইন্ড ভলিউম ৩৬,২৯০ কপি।
শিক্ষক ও ছাত্র ছাত্রীদের জন্য গ্রন্থাগারের দ্বিতীয় তলায় পৃথকভাবে সাধারণ ও বিজ্ঞান পাঠকক্ষ আছে। সাধারণ পাঠকক্ষে কলা, আইন, বিজনেস স্টাডিজ ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের আওতায় পাঠ্য সামগ্রী রক্ষিত আছে। এ কক্ষের মোট আসন ৩৩৪ টি। এর মধ্যে শিক্ষকের জন্য ১৪টি, ছাত্রের ২৫৬টি ও মেয়েদের জন্য ৬৪টি আসন। বিজ্ঞান পাঠ কক্ষে বিজ্ঞান, জীব ও ভূ-বিজ্ঞান ও কৃষি অনুষদের আওতায় পাঠ্য সামগ্রী রক্ষিত আছে। এ কক্ষের আসন সংখ্যা ১৭৮টি। এর মধ্যে শিক্ষকের ১৬টি, ছাত্রের ১৩৮টি ও ছাত্রীর ২৪টি। দ্বিতীয় তলাতেই আছে ক্যাটালগ।
সাময়িকী ও সংবাদ পত্র পাঠের জন্য তৃতীয় তলায় ২টি কক্ষ আছে। সাময়িকী পাঠ কক্ষের আসন সংখ্যা ৮০টি ও সংবাদ পত্র পাঠ কক্ষের আসন সংখ্যা ৭০টি। পাঠকক্ষসমূহ ছুটির দিন ব্যতীত প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকে। তৃতীয় তলাতেই লাইব্রেরি অফিস।
গ্রন্থাগারের গ্রাউন্ড ফ্লোর বা নিচতলায় আছে ধার বিভাগ। এ বিভাগের ষ্টকে রাখা বই ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল শিক্ষক, গবেষক, ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে লাইব্রেরির কার্ডের মাধ্যমে লেনদেন করা হয়। এছাড়া গ্রন্থাগার ব্যবহারকারীদের লাইব্রেরিকার্ড ইস্যু ও ছাড়পত্র দেয়া হয়ে থাকে।২৩৭
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার ছাড়াও আবাসিক হলগুলোর পৃথক গ্রন্থাগার ও প্রতিটি বিভাগের সেমিনার লাইব্রেরি আছে।