ফিরে যেতে চান

বাংলাদেশ ব্যাংকের পিছনে সামিট স্কুলের বর্তমান ভবন (ছবি-জানুয়ারি ২০১৭)

রাজশাহী মহানগরীতে বর্তমানে বেশ কয়েকটি ইংরেজি মিডিয়ামের স্কুল গড়ে উঠেছে। জানা যায়, এ স্কুল সরকারের রেজিস্টার্ডভুক্ত নয়, বৃটেনের কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার্ডভুক্ত। স্কুলগুলোর মধ্যে রাজশাহী মহানগরীর তালাইমারী মোড়ের পাশে সামিট স্কুলটি প্রথম প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৯৬ সাল থেকে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করে।৩২৮ পরে প্রি-স্কুল শ্রেণি থেকে ও (ড়) লেভেল পর্যন্ত পড়ানো হতো। ১৫ জানুয়ারি ২০০৪ তারিখে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে এ স্কুলের শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১০০ জন এবং শিক্ষক সংখ্যা ১৬ জন। 
পরবর্তীতে স্কুলের অবস্থান ও পাঠদান পদ্ধতিতে পরিবর্তন আসে। ২০১১ সালে তালাইমারী থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের পিছনে কাজীহাটায় স্থানান্তর হয়। সেখানে সরকারের নিকট থেকে শত বছরের ইজারা নিয়ে একতলা নিজস্ব অবকাঠামো নির্মাণ করা হয়েছে। শিশুদের জন্য নিরাপদ ব্যবস্থাপনায় নিরিবিলি সবুজ শোভা আছে স্কুলটিতে। আছে খেলনা সামগ্রী। ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখে এ স্কুলে কয়েকটি কাঠের খুদে চেয়ার দেখা যায়। শিশুদের জন্যই চেয়ারের আকৃতি ছোট। বর্তমানে প্রাক প্রাথমিক অর্থাৎ প্লে, নার্সারী এবং প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত পাঠদানের ব্যবস্থা আছে। ইংলিশ মিডিয়াম হলেও ধরন ভিন্ন। প্রাক প্রাথমিক শিশুদের বাংলা ব্যতীত সকল বিষয় ইংরেজি ভাষাই পড়ানো হয়। প্রথম থেকে পঞ্চম পর্যন্ত সরকারি কারিকুলাম অনুসরণ করা হচ্ছে। তবে ভিন্ন বৈশিষ্ট্য হলো সরকারি বইগুলো ইংরেজি অনুবাদ করে পড়ানো হয়। পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষায় (পিইসি) খাতায় ইংরেজি ভাষাই ব্যবহার করবে। ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ তারিখের প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী স্কুলের শিক্ষক সংখ্যা ১০ জন। ৮ জন স্থায়ী ও ২ জন খণ্ডকালীন। স্কুলটি একটি ম্যানেজিং কমিটির মাধ্যমে পরিচালিত হয়।৩২৯