ফিরে যেতে চান

অন্যান্য ভাস্কর্য

এছাড়াও রাজশাহীতে শহিদ মিনারসহ আরো অনেক ভাস্কর্য বিদ্যমান। বর্তমানে প্রায় প্রতিটি কলেজে শহিদ মিনার নির্মিত হয়েছে। নওদাপাড়া পোস্টাল একাডেমি চত্বরে একটি রানারের স্ট্যাচু, শ্রীরামপুরে জাফর ইমাম টেনিস কমপ্লেক্স চত্বরে প্রধান ফটকের সামনে টেনিস খেলোয়াড় স্ট্যাচু, শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানার ভিতরে প্রধান ফটকের কাছে স্থাপিত জিরাফের স্ট্যাচু, দক্ষিণ অংশের মৎস্য ফোয়রা স্ট্যাচুগুলো দৃষ্টি নন্দিত। চণ্ডিপুর ভাটাপাড়া নিবাসী শহীদ এএইচএম কামারুজ্জামান কেন্দ্রীয় উদ্যান ও চিড়িয়াখানার বর্তমান কর্মচারী মাহফুজ ২০১৭ সালের ৮ এপ্রিল জানান, টেনিস খেলোয়াড়, জিরাফ, মৎস্য ফোয়ারা স্ট্যাচু তিনটির স্থপতি মৃনাল হক। সে সময় এ উদ্যান রাজশাহী জেলা পরিষদের আওতায় ছিল। তিনি স্ট্যাচুগুলো নির্মাণের সময় মৃনালের সঙ্গে কাজ করেন।

ঐতিহ্য চত্বর

রাজশাহী মহানগরীর ঐতিহ্যবাহী যানবাহন টমটম এর এই ভাস্কর্যটি ঐতিহ্য চত্বর নামে স্থাপন করা হয়েছে মহানগরীর লক্ষ্মীপুর টিবির মোড়ে। পূর্বে এই জায়গাটিতে ফোয়ারাকৃতির একটি আলোক বাতি ছিল। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন টমটম ভাস্কর্যটি স্থাপন করে। ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি ভাস্কর্যটি উদ্বোধন করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।