ফিরে যেতে চান

রাজশাহী মহানগরীর মশক নিধন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য সিটি কর্পোরেশনের জনস্বাস্থ্য বিভাগের একটি মশক নিয়ন্ত্রণ শাখা ছিল। পরবর্তীতে পরিচ্ছন্ন বিভাগের অন্তর্ভুক্ত করা হয়। ২০১২ সালের সংশোধনী সাংগঠনিক কাঠামোই পরিচ্ছন্ন বিভাগের সঙ্গে মশক নিধন/ভেক্টর নিয়ন্ত্রণ শাখা যোগ হয়। এ কাঠামোই মঞ্জুরিকৃত মোট জনবলের সংখ্যা ১৩৯ জন। তার মধ্যে পরিচ্ছন্ন বিভাগে ৪৬ জন ও মশক নিধন/ভেক্টর নিয়ন্ত্রণ শাখায় ৯৩ জন। তবে ২০১৫ সালের হিসেবে স্থায়ী ও দৈনিক মজুরিভিত্তিক নিয়োজিত কর্মচারীর মোট সংখ্যা প্রায় দেড় হাজার। ৯ মার্চ ২০০৪ তারিখে এ শাখার প্রাপ্ত তথ্যানুসারে মোট ১৫০ জন নিয়োজিত ছিলেন। এরমধ্যে ৯৮ জন দৈনিক মজুরিভিত্তিক ও ৫২ জন নিয়মিত কর্মচারী।
মশক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম দুভাবে সম্পাদিত হয়। লারভা নিধন ও বয়স্ক মশা নিধন। লারভা নিধনের জন্য প্রতিটি ওয়ার্ডকে ৬টি ব্লকে বিভক্ত করা হয়েছে। প্রতিটি ব্লকে ড্রেন, ডোবা, সেফটি ট্যাঙ্ক সপ্তাহে একবার পাওয়ার স্প্রে দ্বারা কিটনাশক ছিটিয়ে লারভা নিধন করা হয়। এজন্য প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রয়োজনীয় কর্মী, কাটা ব্রাশ, হ্যান্ড স্প্রে মেশিন দেয়া আছে এবং তাঁদের প্রতি ৪ মাস অন্তর কিটনাশক সরবরাহ করা হয়। বয়স্ক মশা নিধনের জন্য প্রতি ওয়ার্ডের সর্বত্র ৪ বার করে ফগার মেশিন দ্বারা স্প্রে করা হয়। তবে প্রণীত কর্মসূচির পরিবর্তন হয়।