অধ্যায় ১৮ : প্রত্ন-ইমারত

লালজী আখড়া চৌচালা শিবমন্দির


লালজী আখড়া শিবমন্দির

ঘোড়ামারার দক্ষিণ দিকে সাগরপাড়া-রাণীবাজার রাস্তার দক্ষিণে রাস্তা সংলগ্ন একটি গৃহের মধ্যে এ মন্দিরটি অবস্থিত। লালজী আখড়া অঙ্গনের উত্তর ও দক্ষিণ প্রান্তে মূলত দুটি মন্দির বিদ্যমান। দক্ষিণেরটি চৌচালা শিবমন্দির এবং উত্তরেরটি সমতলছাদ বিশিষ্ট কৃষ্ণমন্দির। বর্গাকার ক্ষুদ্র পরিসরে নির্মিত শিবমন্দিরটি একটি উঁচু মঞ্চের উপর স্থাপিত। মন্দিরটি উত্তরমুখী এক দরজা বিশিষ্ট। এর অভ্যন্তরে কেন্দ্রস্থলে একটি শিবলিঙ্গ বিদ্যমান। ইমারতটির অভ্যন্তর ছাদ গম্বুজ বিশিষ্ট হলেও বহির্ভাগ পিরামিড আদলের চৌচালা ছাদে আচ্ছাদিত। মন্দিরটির অভ্যন্তর ও বহির্ভাগের দেয়ালগাত্রে শুধু পলেস্তারার আচ্ছাদন ছাড়া আর কোন অলংকরণ পরিলক্ষিত হয় না। কেবল চৌচালা ছাদের সম্মুখাংশে শিবের একটি প্রতিকৃতি রয়েছে। এ আখড়ার মন্দির দুটি এবং গৃহ এক মাড়োয়াড়ি পরিবারের নির্মিত। বর্তমানে এ বাড়িতে সুশীলকুমার আগারওয়ালা (বয়স আনুমানিক ৬৫ বছর) বসবাস করছেন। সুতরাং এটি একটি পারিবারিক মন্দির। ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষার্ধে নির্মিত বলে অনুমিত হয়।


রাজশাহীর কথা

আনারুল হক আনা

তৃতীয় সংস্করণ, এপ্রিল 2018

প্রকাশনা : DesktopIT


www.desktopit.com.bd