অধ্যায় ১৪: সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান

শারিরীক শিক্ষা কলেজ


শারীরিক শিক্ষা কলেজ

মহানগরীর বিমান বন্দর রোডের পশ্চিম পাশে সপুরায় (শাহ্ মখদুম থানার পাশে) ১৯৭৯ সালে শারীরিক শিক্ষা কলেজ স্থাপিত হয়। স্নাতক পাস শিক্ষার্থীর এখানে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পান এবং ১০ মাসের কোর্স শেষে ব্যাচেলর অব ফিজিক্যাল এডুকেশন (ইচঊফ) সার্টিফিকেট অর্জন করেন। ১০.৫ একরের বেশি এ কলেজ চত্বরে আছে ২তলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, ১৫০ আসনের ৫তলা বিশিষ্ট একটি ছাত্র হোস্টেল, ৫০ আসনের ৩তলা বিশিষ্ট ১টি ছাত্রী হোস্টেল, ১তলা বিশিষ্ট অধ্যক্ষের বাসভবন, ৩তলা বিশিষ্ট ১ম শ্রেণি কর্মকর্তার কোয়ার্টার, ৫তলা বিশিষ্ট ১টি শিক্ষক-কর্মচারী কোয়ার্টার, সাড়ে ৩তলা বিশিষ্ট ৪র্থ শ্রেণি কোয়ার্টার, ১তলা বিশিষ্ট জিমনেসিয়াম। ৯ ডিসেম্বর ২০০৩ তারিখে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে সাংগঠনিক কাঠামো অনুসারে ১ জন অধ্যক্ষ, ১ জন উপধ্যক্ষ, ৪ জন প্রভাষক, ৯ জন শিক্ষক (তৃতীয় শ্রেণি), ২ জন পার্ট টাইম ডাক্তার, ১ জন প্রধান সহকারী, ১ জন অ্যাকাউনটেন্ট, ১ জন অফিস সহকারী, ১ জন ক্যাশিয়ার, ১ জন লাইব্রেরিয়ান, ১ জন ড্রাইভার ও ২৬ জন ৪র্থ শ্রেণির কর্মচারী আছেন। ৯ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে এ কলেজ ক্যাম্পাসের আয়তন ১৩ একর।


রাজশাহীর কথা

আনারুল হক আনা

তৃতীয় সংস্করণ, এপ্রিল 2018

প্রকাশনা : DesktopIT


www.desktopit.com.bd